সিলেটে নববধূকে হত্যা: স্বামী পালিয়েছে

২৩ নভেম্বর ২০২০ শীর্ষ সংবাদ, সংবাদ শিরোনাম, সিলেট বার পঠিত হয়েছে

বিশেষ প্রতিনিধি : সিলেটে বিয়ের মাত্র ১ মাস ২৩ দিনের মাথায় এক নববধূকে হত্যা করে তার স্বামী পালিয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। রোববার গভীর রাতে তাকে হত্যা করা হতে পারে বলে ধারণা করছে পুলিশ। সোমবার দুপুর ২টার দিকে নগরীর কাজীটুলা এলাকার ৪/১ নম্বর বাসার তালবদ্ধ ঘর থেকে পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করেছে।নিহত নববধূ সৈয়দা তামান্না বেগম (১৯) দক্ষিণ সুরমা থানার বলদি গ্রামের বাসিন্দা। স্বামী আল মামুন নগরীর জিন্দাবাজারের আল মারজান শপিং সেন্টারের ঐশি ফেব্রিক্সের মালিক। তার গ্রামের বাড়ি বরিশালের হোগলার চরে। জাতীয় পরিচয়পত্র অনুযায়ী আল মামুন সিটি করপোরেশনের বারুতখানার বাসিন্দা। গত ৩০ সেপ্টেম্বর পারিবারিকভাবে গোলাপগঞ্জের খান কমিউনিটি সেন্টারে তাদের বিয়ে হয় বলে জানা গেছে।

সিলেট মহানগর পুলিশের উপপুলিশ কমিশনার (গণমাধ্যম) বিএম আশরাফ উল্লাহ তাহের জানান, নগরীর উত্তর কাজীটুলা এলাকার ৪/১ নং বাসা থেকে তামান্নার লাশ উদ্ধার করে হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। তিনি জানান, তামান্না ওই বাসায় ভাড়া থাকতেন। ঘরের দরজা তালাবদ্ধ দেখে বাড়িওয়ালা ও প্রতিবেশীদের সন্দেহ হলে পুলিশকে খবর দেন। নিহতের স্বামী আল মামুন পলাতক রয়েছেন উল্লেখ করে বিএম আশরাফ জানান, তামান্না বেগমের গলায় আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে তাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে।

নববধূর ভাই সৈয়দ আনোয়ার হোসেন রাজা জানান, রোববার রাত ৯টার দিকে তামান্নার সঙ্গে মায়ের সর্বশেষ কথা হয়। তখন স্বাভাবিকই মনে হয়েছে তাকে। সকাল থেকে তামান্না ও তার স্বামী আল মামুনের মোবাইল ফোন নম্বর বন্ধ পাওয়া যায়। হত্যা করে মামনু পালিয়ে গেছে বলে অভিযোগ করেন তিনি। তামান্না বেগমের বাড়ি সিলেটের দক্ষিণ সুরমা থানার বলদি গ্রামের হলেও তার পরিবার বর্তমানে গোলাপগঞ্জ উপজেলার এমসি একাডেমি সংলগ্ন এলাকায় একটি ভাড়া বাসায় বাস করছেন।

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”
শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।