মৌলভীবাজারে শতাধিক দোকানের ভাড়া মওকুফ করলেন দুই রেমিট্যান্স যোদ্ধা আব্দুস ছাত্তার ও আব্দুর রকিব

৫ এপ্রিল ২০২০ আন্তর্জাতিক, এম কন্ঠ স্পেশাল, কৃষি, অর্থ ও বানিজ্য, প্রবাসের খবর, বিশেষ প্রতিবেদন, মৌলভীবাজার, শীর্ষ সংবাদ, সংবাদ শিরোনাম, সারাদেশ বার পঠিত হয়েছে

মশাহিদ আহমদ/সাকের আহমদ: মৌলভীবাজারে করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে খাদ্য সংকটে পড়েছে সাধারণ মানুষ। মরণঘাতী ভাইরাসের আতঙ্কে স্তব্ধ হয়ে পড়েছে জীবন-যাপন। বিশ্বের এমন দুর্যোগকালীন পরিস্থিতিতে মানবিক দিক বিবেচনায় বাংলাদেশে নিজের মালিকানাধিন শহরের বিলাশবহুল ও জনপ্রিয় মার্কেট এসআর প্লাজাসহ মার্কেটের ভাড়াটিয়া, শহরের প্রায় শতাধিক দোকান, ফ্লাট, বাসা-বাড়ীর ভাড়া মওকুফ করে মানবিক কারণে তাদের পাশে এসে দাঁড়ান শহরের গোবিন্দ্রশী এলাকার বাসিন্দা দানবীর আব্দুস ছাত্তার ও আব্দুর রকিব। আজ রবিবার সন্ধায় এ প্রতিবেদকের সাথে মুঠো ফোনে আলাপকালে বিষয়টি নিশ্চিত করে তিনি বলেন- করোনার মহামারীতে সঙ্কটকালীন মুহুর্তে নিজের কথা চিন্তা না করে সম্পূর্ণ মানবিক দিক চিন্তা করে এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছি। এসময় তিনি আরো বলেন, আমি শহরের বিত্তবানদের অনুরোধ করবো আমার মত যেন তারাও মানবিক দিক বিবেচনায় অন্তত একমাসের ভাড়া মওকুফ করে নিজেদের ভাড়াটিয়াদের পাশে দাঁড়ান। তিনি আশা প্রকাশ করেন, অন্যরাও এই দূর্যোগে এগিয়ে এসে মানবতার কল্যাণে পাশে দাঁড়াবেন। জেলার একাধিক লোকজন জানান- প্রবাসীরা দেশের সম্পদ। রেমিট্যান্স যোদ্ধা। আমাদের অহংকার ও গৌরবের প্রতীক। তাদের ঘিরে আমাদের জীবনে সুখ-দুঃখের গল্প। অর্থনৈতিক পরিবর্তন ও বাঙ্গালি সমাজে সুখের সমৃদ্ধি আনয়ন হয় একমাত্র প্রবাসীদের অবদানের কারনে। প্রবাসীরা আমাদের কারো ভাই,কারো পিতা,কারো স্বজন,কারো নিকটআত্মীয়,কারো বন্ধু ও কারো শুভাকাঙ্খী। বিশ্বজুড়ে করোনাভাইাসের প্রতিদিন মারা যাচ্ছেন হাজার হাজার মানুষ। মারা যাচ্ছেন বাংলাদেশের অনেক মায়ের সন্তান। যারা মারা গেছেন তাদেও রুহের মাগফেরাত কামনা করি ও যারা জীবিত রয়েছেছেন তাদের সুস্থতার জন্য মহান আল¬ার কাছে প্রার্থনা করি যেন তারা নিরাপদ ও সুস্থ থাকেন। এই বাঙ্গালী প্রবাসীরা অতীতে ও বর্তমানে দেশেল দু:সময়ে অর্থনৈতিক বিরাট অবদান রেখেছিলেন ও অব্যাহত রয়েছে। বর্তমান সময়ে ও তারা করোনাভাইরাসের আতংকে প্রবাসে বন্দিদশায় জীবন যাপন করছেন। প্রবাসীরা সারা পৃথিবীজুড়ে পরিবার পরিজন নিয়ে গৃহবন্দি থাকলে দেশের জন্য চিন্তা করছেন। কারন তারা বাংলাদেশী ও বাংলা তাদের প্রান। এব্যাপারে রাসেল আহমদ মোঠোফোনে বলেন, আমার পরিবার সিন্তান্ত নিয়েছে করোনা ভাইরাসে ক্ষতিগ্রস্থ সকল ভাড়াটেদের ব্যবসা বানিজ্য সরকারের নির্দেশে বন্ধ থাকায় মানবিক বিবেচনায় প্রায় শতাধিক দোকানের ভাড়া মওকুফ করা হয়েছে। আমরা বাংলাদেশের সকল বৃত্তবানদের দৃষ্টি আকর্ষন করে বলছি আপনারও সবাই আর্ত মানবেতার সেবায় সহযোগীতার হাত বাড়াই।

শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।