মৌলভীবাজারের মেয়ে বাংলাদেশ বিমানের ক্যাপ্টেন

২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯ আন্তর্জাতিক, কৃষি, অর্থ ও বানিজ্য, চাকুরীর খবর, জাতীয়, প্রবাসের খবর, মৌলভীবাজার, লাইফ স্টাইল, শীর্ষ সংবাদ, সংবাদ শিরোনাম, সারাদেশ, সিলেট, সুনামগঞ্জ, হবিগঞ্জ বার পঠিত হয়েছে

বিশেষ প্রতিবেদক: বাংলাদেশ বিমানের অত্যাধুনিক ড্রিমলাইনার ‘আকাশবীণা’ প্রথমবার আকাশে উড়িয়েছেন একজন নারী পাইলট। ঢাকা থেকে ক্যাপ্টেন আলিয়া মান্নানের নেতৃত্বে বিজি-০৩৯ ফ্লাইটটি সৌদি আরবের রিয়াদে পৌছায় গত ২৪ ডিসেম্বর রাদে। এসময় ককপিটে কো-পাইলটও ছিলেন একজন নারী, তিনি হলেন ফার্স্ট অফিসার মুনজারিন রাইয়ান। চলতি বছরের মে মাসে বিমান বহরে যুক্ত হওয়া বোয়িং ৭৮৭-৮ ড্রিমলাইনার ‘আকাশবীণা’ প্রথমবার কোনও নারী পাইলটের নেতৃত্বে আকাশে উড়লো। অবশ্য এর আগে বিমানের ডিসি-১০ ও ৭৭৭ ফ্লাইট পরিচালনায়ও নারী পাইলটদের পেশাগত দক্ষতার নজির রয়েছে। এর আগে ব্রুনেইসহ কয়েকটি দেশে নারী পাইলটরা ড্রিমলাইনার চালিয়েছেন। তবে বাংলাদেশে বিজি-০৩৯ হল ড্রিমলাইনারের প্রথম ফ্লাইট, যেটা নারীরা চালিয়েছেন। বিমান এ ঘটনাকে বর্ণনা করেছে বাংলাদেশের ইতিহাসে ‘একটি বিরল ঘটনা’ হিসেবে।এই অনন্য অর্জনের প্রতিক্রিয়ায় ক্যাপ্টেন আলিয়া মান্নান বলেন, প্রথম কোনো কিছুর সঙ্গে নিজের নাম জড়িয়ে যাওয়া সবার জন্যই এক অসাধারণ প্রাপ্তি। সত্যিই খুব ভালো লেগেছে, বাংলাদেশের প্রথম নারী হিসেবে ড্রিমলাইনার ৭৮৭ পরিচালনা করেছি। আমার সাথে সেদিন থাকা ফার্স্ট অফিসার মুনজারিন রাইয়ান আর ফ্লাইটের দায়িত্বে থাকা প্রত্যেক বিভাগের নারী প্রধানরাও এই ইতিহাসের অংশ হয়েছেন।
নবীন নারী পাইলটদের উদ্দেশে তিনি বলেন, কেউ যদি তার স্বপ্ন বাস্তবায়নের জন্য দিনের পর দিন চেষ্টা করে তাহলে একদিন সে সফল হবেই। এখন অনেক ফ্লাইং ক্লাবে নারীরা পাইলট হওয়ার জন্য প্রশিক্ষণ নিচ্ছেন। তাদের জন্য শুভকামনা থাকছে। বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসে গেজেটেড পাইলট হিসেবে ১৯৯২ সালে কর্মজীবন শুরু করেন আলিয়া মান্নান। ২০০৮ সালে এয়ারবাস ও ২০১৪ সাল থেকে বোয়িং ৭৭৭ চালানো শুরু করেন তিনি। এবার ড্রিমলাইনার চালানোর অভিজ্ঞতা হলো। সাড়ে ১২হাজার ঘণ্টা ফ্লাইট পরিচালনার অভিজ্ঞতা আছে তার। গত (২৮ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় আবারও ড্রিমলাইনার নিয়ে মালয়েশিয়ার কুয়ালালামপুরে গেছেন আলিয়া মান্নান। যথারীতি ফার্স্ট অফিসার ছিলেন মুনজারিন রাইয়ান। কে এই আলিয়া মান্নান ও গ্রামের বাড়ী মৌলভীবাজারে। বাংলাদেশ বিমানের প্রধান ক্যাপ্টেন আলেয়া মান্নান পিংকি মৌলভীবাজারের গিয়াসনগর এলাকার রনভীম গ্রামের লেফটেনেন্ট কর্ণেল মৃত এম. এ মান্নান ও বাংলাদেশ টেলিভিশন (বিটিভি) এর প্রথম ইংরেজী সংবাদ পাঠিকা, সাংবাদিক, ঢাকা লেডিস ক্লাবের দুই বারের সাবেক সভাপতি জাহানারা মান্নানের মেয়ে। মিসেস পিংকির চাচা বিশিষ্ট সমাজ সেবক যোদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মোহিত টুটু ও সোনালী ব্যাংক মৌলভীবাজারের প্রধান শাখার সাবেক ব্যবস্থাপক এম. এ মজিদ।

শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।