বড়লেখায় গৃহবধুকে জড়িয়ে ফেসবুকে অশ্লীল পোস্ট : প্রবাসীকে খোঁজছে পুলিশ

৯ অক্টোবর ২০১৯ মৌলভীবাজার, সিলেট বার পঠিত হয়েছে

বড়লেখা প্রতিনিধি : বড়লেখায় বাবার বাড়িতে বসবাসকারী এক গৃহবধুকে জড়িয়ে ফেসবুকে অশ্লীল ছবি ও বাজে কথাবার্তা লেখা পোস্ট ছড়িয়ে দেয়া দুবাই প্রবাসী আহমদ হোসেন রুয়েলকে খোঁজছে পুলিশ। সে বিয়ানীবাজার উপজেলার গুরেরটেকা গ্রামের মক্তার আলীর ছেলে। স¤প্রতি সে দেশে ফিরলে ওই গৃহবধু তার বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ করেন। শনি ও রোববার দুই দফা পুলিশ সাইভার ক্রিমিনাল রুয়েলকে গ্রেফতার করতে তার বাড়িতে অভিযান চালিয়েছে। কিন্তু পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে প্রতিবারই সে পালিয়ে যায়।

ভুক্তভোগী গৃহবধুর (২৫) অভিযোগ সুত্রে জানা গেছে, ২০১৮ সালের ১৪ মে ইটালি প্রবাসী এক যুবকের সাথে তার বিয়ে হয়। এরপর থেকে গৃহবধু বড়লেখায় বাবার বাড়িতে বসবাস করেন। বিয়ের ১১ দিন পর থেকে বিয়ানীবাজার উপজেলার গুরেরটেকা গ্রামের মক্তার আলীর ছেলে দুবাই প্রবাসী আহমদ হোসেন রুয়েল (৪৫) দুবাইয়ে বসে মোবাইল ফোনে গৃহবধু, তার মা ও ভাইকে অশ্রাব্য ভাষায় গালি গালাজ ও হুমকি প্রদান করে। গৃহবধুর চরিত্র হননের উদ্দেশ্যে নিজের ও বিভিন্ন ফেইক আইডি থেকে ধারাবাহিকভাবে বাজে ছবি ও নোংরা কথাবার্তা লিখে পোস্ট করতে থাকে। ম্যাসেজের মাধ্যমে ওই গৃহবধুর স্বামীর নিকটও এসব অশ্লীল (এডিটিং) ছবি ও নানা কটুক্তি পাঠিয়ে দিতে থাকে। এতে ওই গৃহবধু সামাজিকভাবে হেয়প্রতিপন্ন এবং মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হন। লোক লজ্জায় ঘর থেকে বের হওয়া বন্ধ করে দেন। প্রবাসে থাকা স্বামীর সাথে সম্পর্কের অবনিত ঘটায় মানসিকভাবেও ভেঙ্গে পড়েন। অবশেষে গত ৩ অক্টোবর রুয়েল দুবাই থেকে দেশে ফিরলে ৪ অক্টোবর তিনি বড়লেখা থানায় অভিযোগ দায়ের করেন।

অভিযোগের তদন্ত কর্মকর্তা এসআই রাকিব মোহাম্মদ জানান, অভিযোগ পাওয়ার পরই আসামীকে গ্রেফতারের জন্য বিয়ানীবাজারে তার বাড়িতে দুই দফা অভিযান চালিয়েছেন। কিন্তু পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে সে সটকে পড়ে। তাকে গ্রেফতারের অভিযান অব্যাহত রয়েছে। সে যাতে বিদেশে পালিয়ে যেতে না পারে সে ব্যাপারেও পুলিশ সতর্ক রয়েছে।

শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।