বাংলাদেশ বিমানে যুক্ত হচ্ছে ‘রাজহংস’

১০ সেপ্টেম্বর ২০১৯ আন্তর্জাতিক, জাতীয়, শীর্ষ সংবাদ, সংবাদ শিরোনাম, সারাদেশ বার পঠিত হয়েছে

অনলাইন ডেস্ক: বাংলাদেশ বিমানে যুক্ত হচ্ছে উড়োজাহাজ ‘রাজহংস’। এয়ারলাইন্সের বহরের যুক্ত হওয়া চতুর্থ ড্রিমলাইনারটি উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আগামী ১৪ সেপ্টেম্বর (শনিবার) সকাল ১১টায় ড্রিমলাইনারটি উদ্বোধন করবেন তিনি। এর আগে বৃহস্পতিবার (১২ সেপ্টেম্বর) বিকালে উড়োজাহাজটি শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করবে।বিমান সূত্রে জানা যায়, শাহজালালে অবতরণের পর ড্রিমলাইনারটি ওয়াটার ক্যানন স্যালুটের মাধ্যমে স্বাগত জানানো হবে। উড়োজাহাজটি দেশে নিয়ে আসতে বর্তমানে এয়ারলাইন্সের একটি প্রতিনিধি দল সিয়াটলে বোয়িং কোম্পানির ডেলিভারি সেন্টারে রয়েছেন।

সূত্রে আরও জানা যায়, ২০০৮ সালে মার্কিন উড়োজাহাজ নির্মাতাপ্রতিষ্ঠান বোয়িং কোম্পানি থেকে ১০টি উড়োজাহাজ কেনার জন্য চুক্তি করে বাংলাদেশ বিমান। এয়ারলাইন্সে ইতোমধ্যে চারটি বোয়িং ৭৭৭-৩০০ ইআর, দুটি বোয়িং ৭৩৭-৮০০ ও তিনটি বোয়িং ৭৮৭-৮ ড্রিমলাইনার উড়োজাহাজ বহরে যুক্ত হয়েছে। এবার দেশে আসছে চতুর্থ ও শেষ উড়োজাহাজ ‘রাজহংস’। ‘রাজহংস’ বহরে যুক্ত হলে চুক্তির ১০টি উড়োজাহাজের সবকটি বুঝে পাবে বাংলাদেশ। ড্রিমলাইনারটি যুক্ত হলে বিমানের বহরে উড়োজাহাজের সংখ্যা হবে ১৬টি। এ দিকে নতুন চারটি ড্রিমলাইনারের নাম পছন্দ করেন প্রধানমন্ত্রী। সেগুলো হলো- আকাশবীণা, হংসবলাকা, গাঙচিল ও রাজহংস। এর আগে চারটি বিমানের নামও প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া। সেগুলো হলো- পালকি, অরুণ আলো, আকাশ প্রদীপ, রাঙা প্রভাত, মেঘদূত ও ময়ূরপঙ্খী।

উল্লেখ্য, উড়োজাহাজ রাজহংসের আসন সংখ্যা ২৭১টি। বিজনেস ক্লাস ২৪টি। অপরদিকে ইকোনমি ক্লাস ২৪৭টি। বিমান রাজহংসে অত্যাধুনিক সব সুবিধার পাশাপাশি যাত্রীরা যেসব সুবিধা পাবেন তার মধ্যে রয়েছে- ইন্টারনেট ও ফোন কলের সুবিধা।

শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।