কমলগঞ্জে কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা

৯ অক্টোবর ২০১৯ মৌলভীবাজার, সিলেট বার পঠিত হয়েছে

কমলগঞ্জ প্রতিনিধি :: মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ২০১৭-১৮ সালে পিএসসি, জেএসসি, জেডিসি ও ২০১৮-১৯ সালে এসএসসি ও সমমানের মাদ্রাসা পরীক্ষায় কৃতিত্ব অর্জনকারী শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা প্রদান করা হয়।

বুধবার (৯ অক্টোবর) দুপুরে দয়াময় সিংহ উচ্চবিদ্যালয়ে বাংলাদেশ মণিপুরি আদিবাসী ফোরামের আয়োজনে ২২শ’ শিক্ষার্থীকে এ সংবর্ধনা প্রদান করা হয়।

বাংলাদেশ আদিবাসী ফোরামের সভাপতি মো. আব্দুল মজিদ চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও শিক্ষক সুশীল সিংহ পরিচালনায় প্রধান অতিথি ছিলেন, সিলেট মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ডা. মোর্শেদ আহমেদ চৌধুরী এবং ইসলামিক ফাউন্ডেশন বাংলাদেশের গর্ভনর মিছবাহুর রহমান চৌধুরী।

সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. মো.আব্দুল আউয়াল বিশ্বাস, জালালাবাদ এসোসিয়েশনের সভাপতি ড. এ কে আব্দুল মুবিন, সিলেট লিডিং ইউনিভার্সিটির ট্রেজারার ও সিলেট বিভাগীয় চাকরিজীবী পরিষদ ঢাকাস্থ সভাপতি বনমালী ভৌমিক, মৌলভীবাজার জেলা সমিতি ঢাকাস্থ সভাপতি সৈয়দ মোস্তাক আহমেদ, সিলেট রেঞ্জের অতিরিক্ত ডিআইজি জয়দেব কুমার ভদ্র বিপিএম, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অধ্যাপক মো. রফিকুর রহমান।

এছাড়াও বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, কমলগঞ্জ সরকারি গণমহাবিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ মো. কামরুজ্জামান মিয়া, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান বিলকিস বেগম, মৌলভীবাজার জেলা পরিষদের সদস্য অধ্যক্ষ হেলাল উদ্দিন, সহকারী পুলিশ সুপার লিপি রানি সিনহা, কমলগঞ্জ থানার ওসি মোহাম্মদ
আরিফুর রহমান, বাংলাদেশ মণিপুরি সমাজকল্যাণ সমিতির সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আনন্দমোহন সিংহ, সাংবাদিক মুজিবুর রহমান রঞ্জু প্রমুখ।

এতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ মণিপুরি আদিবাসী ফোরামের সাধারণ সম্পাদক সমরজিৎ সিংহ। উপস্থিত ছিলেন, সাংবাদিক প্রনীত রঞ্জন দেবনাথ, শাহীন আহমদ, ইউপি সদস্য রুপেন্দ্র সিংহ প্রমুখ।

উলেখ্য, ২২শ’ শিক্ষার্থীকে এ সংবর্ধনা দেওয়া হয়েছে। বিগত ১২ বছর ধরে বাংলাদেশ মণিপুরি আদিবাসী ফোরাম সারা উপজেলার কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা প্রদান করে আসছে।

শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।